জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় হাইকোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত করায় প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা।
 
স্থগিতাদেশের পরই খালেদা জিয়ার আইনজীবী সুপ্রিম কোর্ট বার সভাপতি জয়নুল আবেদীন প্রধান বিচারপতিকে বলেন, আমাদের না শুনে জামিন স্থগিত করেছেন। এভাবে স্থগিতাদেশ দেয়া হলে কোর্ট সম্পর্কে পাবলিক পারসেপশন খারাপ হবে।
 
প্রধান বিচারপতি বলেন, আদালত পাবলিক পারসেপশনের দিকে তাকায় না। কোর্টকে কোর্টের মতো কাজ করতে দিন।
 
এরপর বারের সাবেক সহ-সভাপতি গিয়াসউদ্দিন আহমেদ বলেন, আপনি না শুনেই একতরফা আদেশ দিলেন? আমাদের বক্তব্য শুনতে হবে। প্রধান বিচারপতি বলেন, আপনি কি কোর্টকে থ্রেট করছেন? বেশি বাড়াবাড়ি হয়ে যাচ্ছে।
 
এর আগে দুদক কৌসুলি খুরশীদ আলম খানের আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতি হাইকোর্টের জামিন আদেশ রবিবার পর্যন্ত স্থগিত করে দেয়। একইসঙ্গে লিভ টু আপিল দায়ের করতে নির্দেশ দেন। আদালত বলেন, লিভ টু আপিল করুন। রবিবার সকল পক্ষকে শুনব।
 
পরে জয়নুল আবেদীন বলেন, আদালতের আদেশে আমরা ব্যাথিত হয়েছি। এ ব্যথা প্রকাশের কোনো ভাষা নেই। তবে জামিন আদেশের অনুলিপি বের হওয়ায় আপিল বিভাগ তা পর্যালোচনা করে আদেশ দেবেন বলে জানান অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।
শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here