গত সপ্তাহের শেষ কর্মদিবস বৃহস্পতিবারে রাজধানীর ব্যস্ততম সড়ক নীলক্ষেত মোড় এলাকায় দীর্ঘ তিনঘণ্টা অবরোধে ছিল। গতকাল সোমবার ব্যস্ততম এ সড়কটি আবার বেলা ১২টা থেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত দীর্ঘ পাঁচঘণ্টা অবরুদ্ধ হয়েছিল। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন কর্তৃক নিউমার্কেট ভবন দোতলা করার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ব্যবসায়ীরা নীলক্ষেত মোড় এলাকা অবরোধ করে বিক্ষোভ করে।

নিউমার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির ব্যানারে আয়োজিত এই অবরোধের প্রভাবে রাজধানীর সর্বত্র তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। দীর্ঘক্ষণ যানজটে পড়ে অসহনীয় দুর্ভোগ পোহায় সাধারণ মানুষ। তারা বারবার এভাবে রাস্তা অবরোধের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে। পরে ঘটনাস্থলে সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস এসে সিটি করপোরেশনকে ভবন তৈরির সিদ্ধান্ত প্রত্যারের জন্য বলা হবে – এমন নিশ্চয়তা দিলে ব্যবসায়ীরা অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়।

আন্দোলনরত ব্যবসায়ীরা বলেছেন, সম্প্রতি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন হাইকোর্টের নির্দেশনা অমান্য করে মাস্টারপ্ল্যান বহির্ভূত ঢাকা নিউমার্কেটের ছাদে দোকান নির্মাণ, এক নম্বর গেটে বেআইনিভাবে পিলার বসিয়ে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করতে চায়। এসব কারণে আমরা বাধ্য হয়ে আন্দোলনে নেমেছি।

আন্দোলনরতরা নীলক্ষেত মোড়ের চারপাশে দড়ি টাঙ্গিয়ে তার মধ্যে বসে মানব ব্যারিকেড সৃষ্টি করে। এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, সাইন্সল্যাব, কাটাবন আজিমপুর, মিরপুর রোডে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। নীলক্ষেত মোড় অবরোধ থাকার কারণে শাহবাগ, ফার্মগেটের রাস্তায় গাড়ির চাপ বেড়ে যায়।

এ বিষয়ে পুলিশের লালবাগ জোনের এডিসি নাজির আহমেদ খান বলেন, নীলক্ষেতের মতো গুরুত্বপূর্ণ সড়ক অবরোধ করলে পুরো ঢাকা শহরে যানজটের সৃষ্টি হয়। যারাই আন্দোলন করে তাদেরকে আমরা বোঝাই। কিন্তু তারা কয়েক মিনিট আন্দোলন করে উঠে যাবে বলে কথা দিলেও কয়েক ঘণ্টা কাটিয়ে দেয়। অনেক সময় স্পর্শকাতর বিষয় হওয়ায় আমরা কোনো ব্যবস্থা নিতে পারি না।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিল্লাল বলেন, নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতেই নতুন মার্কেট তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন তারা রাস্তায় নেমেছে। প্রয়োজনে আবারো তাদের সঙ্গে বসে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন
  • 6
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here