জনতার নিউজঃ

 

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া দেশের রাজনৈতিক সমস্যা নিয়ে বিদেশিদের কাছে নালিশ করে ক্ষমতায় যাওয়ার যে স্বপ্ন দেখছেন তা কখনো বাস্তবায়ন হবে না। রাজনৈতিক সমস্যা রাজনৈতিকভাবেই সমাধান করতে হয়। এটা নিয়ে কারো কাছে নালিশ করা যায় না।

আজ শনিবার সংসদে ২০১৪-১৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

এর আগে আজ সকাল ১০টা ০৮ মিনিটে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনের শুরুতে প্রশ্ন-জিজ্ঞাসা-উত্তর টেবিলে উপস্থাপনের পর ২০১৪-১৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনা শুরু হয়।

২০১৪-১৫ অর্থবছরের বাজেট আলোচনার ১৪তম দিনে সকালের বৈঠকে আজ প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু অংশ নেন।

আমির হোসেন আমু বলেন, তারা একদিকে সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে অবৈধ বলছেন আবার তাদের অধীনে নির্বাচনে যাচ্ছেন। আসলে তারা কি চায় তারা নিজেরাই জানেন না।

তিনি বলেন, বিএনপির গাত্রদাহ সেদিন থেকে শুরু হয়েছে, যেদিন উচ্চ আদালতের রায়ে সংবিধানের ৫ম সংশোধনী বাতিল হয়ে যায়। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু হওয়ার পর থেকে তারা সংবিধান পরিপন্থী নানা বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া সংলাপের আহ্বান জানিয়ে বর্তমানে যেসব কথা বলছেন, তা দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করার অপচেষ্টামাত্র।

তিনি বলেন, কিন্তু দেশের স্বার্থ ও গণতন্ত্রের স্বার্থে ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের আগে মহাজোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খালেদা জিয়াকে সর্বদলীয় সরকারে যোগ দেয়ার এবং তার পছন্দমতো মন্ত্রণালয় তাকে দেয়ার কথা জানান। কিন্তু সেদিন তিনি প্রধানমন্ত্রীর এ আহ্বান প্রত্যাখ্যান করে হরতাল দেন। সে হরতালে ৩০ জন সাধারণ মানুষ নিহত হয়। অসংখ্য যানবাহনে অগ্নিসংযোগ, ট্রেনে আগুন এবং পথেঘাটে সহিংসতা ঘটিয়ে দেশকে এক অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করার ব্যর্থ চেষ্টা করা হয়।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেদিন গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে রাজনৈতিকভাবেই সেসব সহিংস ঘটনার মোকাবেলা করেন। সেদিন প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দেননি এবং আজ যে সরকারকে তারা অবৈধ বলছেন তাদের সঙ্গে কিভাবে আলোচনা হবে। তাদের সঙ্গে কোন আলোচনা নয়।

বিএনপিকে পাকিস্তানপন্থী উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, যে জামায়াত-শিবির দেশের স্বাধীনতার বিরোধিতা করছে, বিএনপি তাদের সমর্থন দেয়ায় জাতির কাছে তারা আজ আস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে তারা অংশ না নিয়ে অবৈধ পথে ক্ষমতায় যেতে চেয়েছিল।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here