বিশেষ প্রতিবেদনঃ-

দেশের বর্তমান অবস্থার জন্য শেখ হাসিনা দায়ী

আজকে বাংলাদেশের এই অবস্থার জন্য সম্পূর্ণরূপে বেগম খালেদা ও জঙ্গি জামাত দায়ী। বাংলাদেশে এখন একটি চাপাতিতন্ত্র কায়েম করেছেন তারা, যা চালাচ্ছেন খালেদা জিয়া। তিনি যা হুকুম দিচ্ছেন,যাকে হত্যা করতে  নির্দেশ দিচ্ছেন, তার সৈন্য-সামন্তরা সেভাবে চাপাতি দিয়ে কাজ করছে। অন্য কারও আদেশ-নির্দেশ সেখানে চলে না।’

 

বাংলাদেশের মানুষ ভালো থাকুক বা বাংলাদেশ উন্নয়ন করুক তিনি তা  মোটেও চায় না। দেশে এখন আইন-শৃঙ্খলার অবস্থার অবনতি ঘটিয়ে তিনি যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে লন্ডনে বসে লভিস্ট নিয়োগ করে দেশের অবস্থা খারাপ করে বিশ্ব কে বুঝাতে চাচ্ছেন যে বাংলাদেশের অবস্থা অনেক খারাপ। বাংলাদেশে এখন কায়েম হওয়া চাপাতিতন্ত্র চালাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া। সব সন্ত্রাসী কার্য্যকলাপ তার কথামতো চলে। দেশে অরাজকতা সৃষ্ট্রি করে তিনি বলছেন দেশে গণতন্ত্র নেই। সেজন্য একের পর এক হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটছে। ইতালির নাগরিক তাভেল্লা চেজার হত্যার মুহূর্তে কূটনৈতিক পাড়ার হই চই পড়ে যায় যে বাংলাদেশ নিরাপদ স্থান নয়, সব কিছুর মূলে রয়েছে ডলার আর বিদেশের কিছু দালাল সংগঠন কে দিয়ে লভিস্ট নিয়োগ করে রাষ্ট্রের বিরোদ্ধে একের পর এক ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন এটা বুঝার জন্য ডকটরেট হওয়ার দরকার নাই।

 

ভয় দেখানো হচ্ছে যে খালেদা জিয়ার সাথে  সংলাপ না করলে ‘জঙ্গিদের ধমানো যাবে না, তাহলে ধরেই নিতে পারি যে জঙ্গিরা তার নির্দেশে চলে, না হয় তার সাথে সংলাপ করলে সন্ত্রাসী জঙ্গি ততপরতা নাকি বন্ধ হয়ে যাবে, বিদেশিদের টাকা/ডলার দিয়ে কিনে নিয়ে তাদের দিয়ে বাংলাদেশ সরকারকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করছেন। বুঝাতে চাইছেন, তিনি ক্ষমতায় না থাকলে এবং বিএনপি ক্ষমতায় না এলে জঙ্গিদের উত্থান হবে।

 

 বিদেশীদের দিয়ে জোড় করে প্রমান করাতে চাচ্ছেন যে বাংলাদেশে আই এস আছে, তাহলে পাকিস্তানের মত আমেরিকা হস্তক্ষেপ করতে পারবে, আর আমেরিকা যে দেশে হস্তক্ষেপ করে সেখানে মূলত বেঈমান দেশ বিরোধী কাউকে ক্ষমতায় বসায়, আমেরিকা আমাদের স্বাধীনতা বিরোধী, তারা পাকিস্তানকে নিলজ্জ ভাবে সমর্থন করেছিলেন, আজকেও তারা চাচ্ছেন যে তাদের বিশ্বাসী পাকিস্তান পন্থি বেগম খালেদা জিয়াকে ক্ষমতায় বসিয়ে আমাদের গভীর সমুদ্র বন্দর দখল করে, বাংলাদেশে ঘাটি গেড়ে চিনের সাথে যুদ্ধ করতে। আমেরিকা যদি এতই মুসলীম প্রিত তাহলে কেন, মায়ানমার এর মুসলীম ও পেলেস্তাইনের মুসলীমদের রক্ষা করছেন না ? আমেরিকার সূর্য আস্তে আস্তে অস্ত যাচ্ছে, ক্ষমতা এখন এশিয়ার দিগে ধাবিত,বর্তমান অর্থনৈ্তিক শক্তি হচ্ছে চিন ও জাপান কয়েক বছর পরে ভারত আর বাংলাদেশ আস্তে আস্তে উন্নতির দিগে যাচ্ছে।

 

জনগনকে সবকিছু ভুলে যেতে হবে, বিএনপি প্রতিশোধের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে কারন ১৯৭১ সালের পরাজয়ের গ্লানি তারা ভূলতে পারে নাই ,  খালেদা জিয়া চাচ্ছেন দেশ ধ্বংস হয়ে যাক তাতে কিছু যায় আসে না কারন পাকিস্তানীরা জনগন চাইনি তারা চেয়েছিলেন পোড়া মাটি, বি,এন,পি বর্তমানে জামাতকে সাথে নিয়ে পাকিস্তানের এজেন্ডা বাস্তবায়নে বাংলাদেশ থেকে লুটপাট করা জনগনের টাকা  দিয়ে আজকে জনগনের বিরুদ্ধে লভিস্ট নিয়োগ করে সেই পোড়া মাটির নিতি গ্রহন করেছেন যেহেতু তারা দেশ গড়ার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না।তাই জনগনকে সবকিছু ভুলে যেতে হবে। পাকিস্তানি প্রেতাত্মা জামাত-বি,এন,পিকে  জাতীয় ঐক্যের ভিত্তিতে সবাইকে সাথে নিয়ে  এদের হঠাতে হবে।’

 

খালেদা জিয়া কি আদো দেশে ফিরবেন : দীর্ঘ প্রায় দেড় মাস লন্ডনে অবস্থানের পরও বুঝা যাচ্ছে না তিনি আদো দেশে ফিরবেন কিনা ? কারণ তারেক জিয়া যেভাবে ডাক্তারের দোহাই দিয়ে অসুস্থ্য বলে দেশে ফিরছেন না, ঠিক একই ভাবে বেগম খালেদা জিয়াও ডাক্তারের কথা বলে দেশে ফিরছেন না বা কোনদিন ফিরবেন কিনা তারও কোন ব্যাখ্যা নাই,

 

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here