J News
‘দেশকে অস্থিতিশীল করাই ছিল উদ্দেশ্য’

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, দেশকে অস্থিতিশীল করতেই ইতালীয় নাগরিক তাবেলা সিজারকে হত্যা করা হয়েছে। সরকারকে চাপে ফেলাই ছিল উদ্দেশ্য। তাবেলা হত্যায় জড়িত তিনজনসহ আটককৃত চারজন এ কথা স্বীকার করেছে।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলামের সরাসরি তত্ত্বাবধানে ডিবির একাধিক টিম রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাবেলা হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনসহ মোট চারজনকে আটক করে।

আটককৃতরা হলেন- রাসেল চেধুরী ওরফে চাকতি রাসেল। তাকে গুলশান এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তানজিল আহমেদ রাসেল ওরফে মোবাইল রুবেল ওরফে সুতা রুবেল। তাকে বাড্ডা এলাকা থেকে আটক করা হয়। মিনহাজুল ইসলাম রাসেল ওরফে ভাগ্নে রাসেল ওরফে কালা রাসেল। তাকেও বাড্ডা এলাকা থেকে আটক করা হয়। তার দেয়া তথ্য মতে মানিকের গ্যারেজ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।। তাই মানিকেও গ্রেফতার করা হয়। মোটরসাইকেলটি সাখাওয়াত হোসেন শরীফ নামের এক ব্যক্তির। তার কাছ থেকে অভিযানের কথা বলে ভাগ্নে রাসেল মোটরসাইকেলটি ধার নেয়।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ভাগ্নে রাসেল ও চাকতি চৌধুরী নেশাসক্ত। তারা বিভিন্ন মামলায় কয়েকবার কারাভোগ করেছে এবং এখনো তাদের নামে অনেক মামলা রয়েছে। ঠান্ডা মাথার খুনি হিসেবে রুবেলের অতীত রেকর্ড রয়েছে।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here