Fakrulকলঙ্কিত নির্বাচন আর রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মাধ্যমে যে ভাবে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আঁকড়ে থাকার চেষ্টা করছে তাতে করে আওয়ামী লীগকেই খেসারত দিতে হবে বিএনপিকে নয়। জামায়াতে ইসলামীর সাথে বিএনপির কোনো বিরোধ নেই। জামায়াত ১৮ দলের সাথেই আছে এবং থাকবে। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতকাল শুক্রবার বিকেলে নীলফামারী বিএনপি কার্যালয় চত্বরে আয়োজিত সমাবেশে একথা বলেন।

তিনি বলেন, গত ৫ই জানুয়ারির কলঙ্কিত নির্বাচনে নৈতিক ও রাজনৈতিক ভাবে পরাজিত আওয়ামী লীগ এখন দেউলিয়া হয়ে পড়েছে। দেশে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস সৃষ্টি করে পরিকল্পিতভাবে ১৮দলের নেতাকর্মীর বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করছে। মির্জা ফখরুল অভিযোগ করে বলেন, যৌথবাহিনীর অভিযানে সারা দেশে ২২৭ জন দলীয় নেতাকর্মী নিহত হওয়া ছাড়াও জামায়াতে ইসলামীসহ ১৮ দলের জোটভুক্ত অন্যান্য দলের ৬৭ জন নেতাকর্মী নিহত হয়েছেন। যৌথবাহিনীর অভিযানে সারা দেশে ২৯৪ জন নেতাকর্মী নিখোঁজ ও গুম হয়েছেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আরো বলেন, দেশ আজ রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের কবলে। সাতক্ষীরা, নীলফামারীসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বর্তমান সরকার রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে সন্ত্রাস শুরু করেছে। তিনি বলেন, আসাদুজ্জামান নূরের গাড়িবহরে হামলা মামলার আসামিদের পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হচ্ছে। তাদের লাশ রাস্তার ধারে পাওয়া যাচ্ছে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, আসামিদের বিচারের আওতায় না এনে হত্যা করা হচ্ছে। তিনি সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের সমালোচনা করেন।

ফখরুল বলেন, ভোট এলেই সংখ্যালঘু সমপ্রদায়ের উপর নির্যাতনের নাটক সাজানো হয় রাজনৈতিকভাবে ফায়দা লোটানোর জন্য। ঠাকুরগাঁও এর ঘটনা উল্লেখ করে মির্জা আলমগীর বলেন, সেটাকে নিয়েও রাজনীতি করা হয়েছে। ঠাকুরগাঁও-এ যারা নিহত হয়েছেন, তারা বিএনপির নেতাকর্মী। তিনি ১৪ই ডিসেম্বর আসাদুজ্জামান নূরের গাড়ি বহরে হামলা মামলায় নিহত আসামি গোলাম রব্বানী ও আতিক হত্যার বিচার এবং ওই ঘটনায় আরো নিখোঁজ ৩ জনের হদিস দাবি করে অবিলম্বে খুন-গুম বন্ধের দাবি জানান। তিনি বলেন, ৫ই জানুয়ারির প্রহসনের নির্বাচন বাতিল করে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নতুন নির্বাচনের ব্যবস্থা না করা পর্যন্ত বিএনপি জনগণকে সাথে নিয়েই রাজপথে থাকবে। জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এ্যাড. মিজানুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন জেলা কমিটির সদস্য সচিব শামসুজ্জামান জামান।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here