গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ মাখদুম হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সদ্য পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) পদে নিয়োগ পাওয়া খলিলুর রহমান মামুন (২৪) নিহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ডোমেরহাট বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। হামলায় জামায়াত-শিবিরের সশস্ত্র ক্যাডাররা অংশ নিয়েছেন বলে প্রত্যক্ষদর্শী, পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের পারিবারিক সূত্র জানায়, খলিলুর রহমান সুন্দরগঞ্জ উপজেলার রামজীবন ইউনিয়নের বাজারপাড়া গ্রামের আঙ্গুর মিয়ার ছেলে। খলিলুর পুলিশের চাকরিতে যোগদানের আগে বাবা-মায়ের সঙ্গে দেখা করতেই সম্প্রতি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাড়িতে আসেন। আজ সন্ধ্যা ছয়টার দিকে তিনি ডোমেরহাট বাজারের একটি সেলুনে চুল কাটাতে যান। এ সময় জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা তাঁর ওপর অতর্কিতভাবে হামলা চালান। তাঁরা রামদা, হকিস্টিক দিয়ে খলিলুরকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। তাঁর চিত্কারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে গেলে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা সরে পড়েন। গুরুতর আহতাবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে খলিলুর রহমান মারা যান।

এদিকে খলিলুর রহমানের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে ডোমেরহাট এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তাঁর আত্মীয়স্বজন, স্থানীয় আওয়ামী লীগ এবং ছাত্রলীগের কর্মীরা ডোমেরহাট বাজারের প্রায় ১০টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও একটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আজ রাত আটটার দিকে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি।

গাইবান্ধার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোশাররফ হোসেন প্রথম আলো ডটকমকে বলেন, জামায়াত-শিবিরের হামলায় ছাত্রলীগ সভাপতি খলিলুর রহমান নিহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছে।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here