log5

অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের প্রধান হতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ। এ ছাড়াও আগামী জানুয়ারিতেই সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং খালেদা জিয়াকে শেখ হাসিনার অধীনে অবশ্যই নির্বাচনে আসতে হবে বলেও তাঁরা মনে করছেন।

আজ বৃহস্পতিবার নগরের লালদীঘি ময়দানে অনুষ্ঠিত জনসমাবেশে নেতারা এসব কথা বলেন। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ এ সমাবেশের আয়োজক ছিল।

সমাবেশে ক্ষমতাসীন দলের সাংসদ মোশাররফ হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনালাপে খালেদা জিয়ার কথোপকথন শুনে বোঝা গেছে তাঁর সঙ্গে আপস সম্ভব নয়। হরতাল নৈরাজ্য করে বিরোধী দল কখনোই দাবি আদায় করতে পারবে না।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এই সদস্য আরও বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সর্বদলীয় সরকার গঠন করে আগামী জানুয়ারিতেই সংসদ নির্বাচন হবে এবং খালেদা জিয়াকে শেখ হাসিনার অধীনে অবশ্যই নির্বাচনে আসতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের চট্টগ্রামবাসীর দাবি, অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের প্রধান হবেন শেখ হাসিনা। আগামী নির্বাচনে ব্যক্তি নয়, প্রতীককে ভোট দেবেন সবাই। আওয়ামী লীগ যাকেই মনোনয়ন দেবে, নগরের চারটি আসনে তাঁকেই জয়ী করতে হবে।’

বিরোধী দলের হুমকির জবাবে আওয়ামী লীগ নীরব থাকবে না উল্লেখ করে মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘আপনারা মিটিং মিছিল করেন, কিন্তু আঘাত দেবেন না। এর কাউন্টার দেয়ার শক্তি আমাদের আছে।’ বিএনপিকে জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করার পরামর্শ দিয়ে মহিউদ্দিন চৌধুরী আরও বলেন, ‘বিরোধী দলের খামখেয়ালিতে অনেক মানুষ নিহত হয়েছে। স্বাধীন দেশে তারা খুন করবে, এটা মেনে নেওয়া যায় না। খুনের বিচার হবে। ৭১-এ যারা খুন করেছে, তাদের বিচারও হচ্ছে।’

সমাবেশে বক্তব্যে সাংসদ মইনুদ্দীন খান বাদল বলেন, ‘তিন দিনের হরতালে হত্যার দায়ে আজ হোক, কাল হোক খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করা হবে। আন্দোলনের নামে যাঁরা গলাবাজি করছেন, এ চট্টগ্রামের মাটিতেই তাঁদের কবর রচনা করা হবে।’

নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলমের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেমউদ্দিন আহমেদ, নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী প্রমুখ।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here