gbnews

গাইবান্ধা ও বরিশালে বাস এবং ট্রাকে পেট্রোলবোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ জনে। গাইবান্ধায় নিহত হয়েছেন ৬ জন। অন্যদিকে বরিশালে নিহত হয়েছেন ৩ জন।  গাইবান্ধায় দগ্ধ হাসপাতালে  ভর্তি  আরো ৬ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

গাইবান্ধা প্রতিনিধি জানান, পুলিশ পাহারার মধ্যেই শুক্রবার রাত ১১টার দিকে গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়কের গাইবান্ধা সদর উপজেলার তুলসীঘাট পল্লী বিদ্যুত অফিসের সামনে একটি যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোল বোমা হামলায় নারী ও শিশুসহ ৬জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দগ্ধ হয়েছেন আরো কমপক্ষে ৩০ জন।

নিহতরা হলেন- গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ কালির খামার গ্রামের খয়বর হোসেনের ছেলে সৈয়দ আলী (৪২), একই উপজেলার কঞ্চিবাড়ী মধ্যপাড়া খামার গ্রামের বলরাম দাসের মেয়ে শিল্পি রাণী (১০), চন্ডিপুর গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে সুমন (২২), পশ্চিম সীচা গ্রামের সাঈদ মিয়ার স্ত্রী হালিমা বেগম (৪০) ও চন্ডিপুর গ্রামের তারা মিয়া মিয়ার ছেলে সুজন (১১)।

সদর থানার ওসি রাজিউর রহমান জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সীচা থেকে ৪০/৫০ জন যাত্রী নিয়ে ‘নাপু পরিবহনের’ একটি বাস ঢাকার পথে রওনা হয়। পথে গাইবান্ধা সদর কেন্দ্রীয় বাস ট্রামিনালে আসার পর সেখান থেকে পুলিশ পাহাড়ায় আরো বেশ কিছু যানবাহনের সাথে একযোগে পুনরায় ঢাকার পথে রওনা দেয়। রাত ১১ টার দিকে বাসটি সদর উপজেলার তুলসীঘাট পল্লী বিদ্যুত অফিসের সামনে পৌঁছুলে দুর্বৃত্তরা পেট্রোল বোমা ছুড়ে মারে। এতে দগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে তিনজন মারা যান। গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতালে মারা যান আরো একজন। ঐ রাতেই রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুজন (১১) নামে এক শিশু মারা যায়। পরে শনিবার সোনাবানু নামে একজন মারা গেছেন।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ও প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মারুফুল ইসলাম জানান, দগ্ধদের মধ্যে ভোর রাত পর্যন্ত দফায় দফায় সর্বমোট রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৯ জনকে ভর্তি করা হয়।

গাইবান্ধা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোশাররফ হোসেন জানান, নাশকতাকারীদের ধরতে অভিযান শুরু হয়েছে।

বরিশাল অফিস জানায়, বরিশালের গৌরনদীতে একটি ট্রাকে দুর্বৃত্তদের পেট্রোল বোমা হামলায় দগ্ধ হয়ে তিনজন নিহত হয়েছেন। শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে গৌরনদীর মাহিলাড়া নামক স্থানে এই ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- ট্রাক ড্রাইভার ইজাজুল, হেলপার মুন্না ও ইজাজুলের শ্বশুর (নাম জানা যায়নি)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পোল্ট্রি খাবার ভর্তি ট্রাকটি গাজীপুরের বাগের বাজার থেকে বরিশাল যাচ্ছিল। গৌরনদীর মাহিলাড়া হাটের দক্ষিণ পাশে সরকার মঠ সড়কের সন্নিকটে পৌঁছলে দুবৃত্তরা ট্রাকটি লক্ষ্য করে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে।  এতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে ৩ জন মারা যান। নিহতদের বাড়ি ফরিদপুরের বদরপুর এলাকায় বলে জানা গেছে।

সকালে বরিশাল-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, পুলিশের ডিআইজি হুমায়ুন কবির, জেলা প্রশাসক শহিদুল আলম, পুলিশ সুপার একেএম এহসান উল্লাহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here