Report

গরমে স্যুট-টাই পরা মন্ত্রীদের তিরস্কার করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশনা না মেনে গরমের মধ্যেও স্যুট-টাই পরে মন্ত্রিসভার বৈঠকে অংশ নেয়া মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের তিরস্কার ও ভর্ত্সনা করেছেন। মার্চ থেকে নভেম্বর পর্যন্ত অফিসে স্যুট-টাই না পরার নির্দেশনা থাকলেও সোমবারের মন্ত্রিসভা বৈঠকে যেসব মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী ওই পোশাক পরে এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী তাদের উদ্দেশে এ তিরস্কার করে বলেন, গরমে স্যুট-টাই পরে এসেছেন কেন? এটা কি আমাদের ড্রেস? ওগুলো তো বৃটিশদের ড্রেস। বৃটিশদের গোলামী গোলামী করেছেন, তার অভ্যাস এখনো যায়নি?

আনুষ্ঠানিক বাধ্যবাধকতা ছাড়া মার্চ থেকে নভেম্বর পর্যন্ত অফিসে স্যুট-টাই না পরতে ২০০৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর সরকারি, আধা-সরকারি এবং স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি নির্দেশনা জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। ২০১২ সালের ৫ জুন নতুন করে ওই আদেশ ফের প্রকাশ করে স্যুট-টাইয়ের পরিবর্তে প্যান্ট ও শার্ট (অর্ধ/পুরাহাতা) পরার কথা করে সরকার। বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পুরুষ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদেরও মার্চ থেকে নভেম্বর পর্যন্ত স্যুট-টাই না পরে প্যান্ট-শার্ট পরতে ২০০৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর অনুরোধ জানায় সরকার।

সূত্র জানায়, মন্ত্রিসভায় বৈঠকে স্যুট-টাই পরে যান অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, রেল পথমন্ত্রী মুজিবুল হক, শ্রম প্রতিমন্ত্রী মজিবুল হক চুন্নু, ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক প্রমুখ।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনসহ বেশ কয়েক মন্ত্রী স্যুট পরলেও টাই পরেননি। ম

ন্ত্রিসভার এক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ফিসফিস করে প্রধানমন্ত্রীকে কিছু একটা বলেন। এরপরেই স্যুট-টাই নিয়ে কথা বলা শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী। ওবায়দুল কাদেরকে স্যুট-টাই পরা অবস্থায় দেখা যায়নি।

সকাল ১০টায় মন্ত্রিসভা বৈঠক শুরুর পরপরই প্রধানমন্ত্রী স্যুট-টাই নিয়ে যখন কথা বলছিলেন তখনও মন্ত্রিসভার সব সদস্য বৈঠকে এসে উপস্থিত হননি বলে জানান ওই মন্ত্রী। নাম প্রকাশে আরেকজন মন্ত্রী বলেন, স্যুট-টাই পরা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী কথা বলার পর একজন মন্ত্রী পাজামা-পাঞ্জাবি পরে আসবেন কি না, জানতে চেয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী তখন সরকারের নির্দেশনার কথা স্মরণ করিয়ে দেন।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here