জনতার নিউজঃ

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ‘বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে বাইরে রেখে নির্বাচন করার ইচ্ছা আওয়ামী লীগের নেই। আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দিতে চাই না। আমরা চাই খালেদা জিয়া নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করুক।’ গতকাল বুধবার জাতীয় যাদুঘর মিলনায়তনে থ্যালাসেমিয়া সম্পর্কে প্রচারাভিযানের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, আগামী নির্বাচন আবাধ, সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ হবে।

‘হয়রানি করার জন্য বেগম খালেদা জিয়ার আদালত স্থানান্তর হয়েছে’ মর্মে সম্প্রতি বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘আমরা কাউকে হয়রানি করতে চাই না। খালেদা জিয়া হোক আর যেই হোক। হয়রানি করার জন্য আদালত স্থানান্তর করা হয়নি। তার নিরাপত্তার জন্য আদালত স্থানান্তর করা হয়েছে।’ তিনি বলেন, ২০১৮ সাল হবে আওয়ামী লীগের জন্য নির্বাচনের বছর। এ বছর বিজয়ের মাসে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী নির্বাচনে নৌকার বিজয় ছাড়া অন্য কোনো বিকল্প নেই। বিজয়ের মাসে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির বিজয় হবে এটাই স্বাভাবিক। বেসরকারি হাসপাতাল মালিকদের উদ্দেশ্যে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আমি আবারো আপনাদের সতর্ক করে দিচ্ছি। রোগীদের ভেজাল রক্ত দেবেন না। কোনো ধরনের অভিযোগ পেলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হাবিবুর রহমান, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ইহতেশামুল হক চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বিএসএমএমইউকে সেন্টার অব এক্সিলেন্সে পরিণতকরণ দ্বিতীয় পর্যায় প্রকাশের সমাপ্ত হওয়ার পর পরিদর্শনের সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, সার্জারি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবুর রহমান দুলাল, পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আব্দুল্লাহ আল হারুন, সিন্ডিকেট মেম্বার অধ্যাপক ডা. ছয়েফ উদ্দিন আহমেদ, কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. এস এম মোস্তফা জামান, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এ কে এম হাবিবুর রহমান, চিফ এস্টেট অফিসার ডা. এ কে এম শরীফুল ইসলাম, উপ-রেজিস্ট্রার ডা. শেখ আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here