image_29522.pic-21
একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধে জামায়াতে ইসলামের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল কাদের মোল্লার ফাঁসির দণ্ডাদেশ স্থগিত করায় আবারো উত্তাল হয়ে পড়েছে শাহবাগ। এই স্থগিতাদেশকে প্রত্যাখ্যান করেছে গণজাগরণ মঞ্চ। গতকাল মঙ্গলবার এই স্থগিতাদেশের খবর আসার পরপরই বিক্ষোভে ফেটে পড়ে গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা। শাহবাগ এলাকার প্রধান সড়ক বন্ধ করে দিয়ে স্লোগানে স্লোগানে প্রকম্পিত করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে তারা।

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার বলেন, ‘গণজাগরণ মঞ্চ এই স্থগিতাদেশ প্রত্যাখ্যান করছে। কাদের মোল্লার ফাঁসির রায় কার্যকর না হওয়া পর্যন্ত আমরা শাহবাগে অবস্থান করব।’

গতকাল রাত ১২টা ১ মিনিটে ফাঁসি কার্যকর করতে কারা কর্তৃপক্ষ সব প্রস্তুতি নেওয়ার পর কাদের মোল্লার আইনজীবীদের আবেদনে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর স্থগিতের আদেশ দেন সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত এ রায় স্থগিত রাখার আদেশ দেন তিনি।

যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার ফাঁসি রায় রাত ১২টা ১ মিনিটে বাস্তবায়নের ঘোষণা আসার পরপরই গতকাল সন্ধ্যা থেকে শাহবাগে অবস্থান নিতে থাকে গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা। জাতীয় জাদুঘরের সামনে জড়ো হতে শুরু করে সর্বস্তরের জনগণ।

এ সময় তাদের মুখে শোনা যায় নানা জালাময়ী স্লোগান। এসবের মধ্যে রয়েছে- ‘ক-তে কাদের মোল্লা/তুই রাজাকার, তুই রাজাকার’, ‘পাকিস্তানের প্রেতাত্মা/পাকিস্তানে ফিরে যা’, ‘দড়ি ধরে মার টান/কাদের যাবে পাকিস্তান’, ‘তুমি কে আমি কে/আদিবাসী বাঙালি’, ‘তোমার আমার ঠিকানা/পদ্মা মেঘনা যমুনা’, ‘জয় বাংলা’ প্রভৃতি।

মঙ্গলবার রাতের মধ্যেই ফাঁসি কার্যকর করার দাবি জানিয়ে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার বলেন, ‘আজ (মঙ্গলবার) রাতের মধ্যে কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর করতে হবে। নতুবা আমরা শাহবাগ ছেড়ে যাব না।’ তিনি বলেন, ‘কাদের মোল্লার ফাঁসির রায় বাস্তবায়নের ঘোষণার পর থেকেই আমরা শাহবাগে অবস্থান নিয়েছি। তার ফাঁসি না হওয়া পর্যন্ত আমরা এখানেই অবস্থান করবো।’ তিনি আরও বলেন, ‘এ রায় কার্যকর হলে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হবে। কলঙ্ক থেকে মুক্ত হবে জাতি।’

রাত সাড়ে ১২টা দিকে শাহবাগ এলাকায় সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে প্রধান সড়ক বন্ধ করে দিয়ে অনেকেই মোমবাতি জ্বালিয়ে অবস্থান নিয়েছে। তাদের লাগাতার স্লোগানে মুখর হয়ে ছিল পুরো এলাকা। এ সময় অনেক কর্মীকেই লাঠিসোটা হাতে সতর্ক অবস্থায় থাকতে দেখা যায়।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৮ মে কাদের মোল্লার বিচার শুরু হওয়ার পর গত ৫ ফেব্রুয়ারি তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। ওই দিনই কাদের মোল্লার ফাঁসির দাবিতে গণজাগরণ আন্দোলন সূচিত হয়। ওই রায়ের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে সেদিন বিকালে রাজধানীর তরুণ প্রজন্ম শাহবাগ মোড়ে জড়ো হতে থাকে। এই জমায়েতই পরে লাখো মানুষের সমাবেশে পরিণত হয়ে বিরল এক ইতিহাসের সৃষ্টি করে।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here