আতিকুর রহমান: হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, এরশাদ বদদোয়া নয় বড় দোয়া নিয়ে গেছেন।

সর্বদলীয় সরকারে যোগ দেয়ায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আল্লামা শাহ আহমদ শফীর দোয়া নয়, বরং বদদোয়াই নিয়ে গেছেন উল্লেখ করে পাঠানো বিবৃতি কথা অস্বীকার করে বাবুনগরী বলেন, বদদোয়া নয় এরশাদ বড় দোয়া নিয়ে গেছেন।

ডেইলি জনতার নিউজের চট্রগ্রাম প্রতিনিধিকে তিনি বলেন, মাঠে-ময়দানে যাঁরা ইসলামের পক্ষে কাজ করছেন, হেফাজতের আমির তাঁদের সাফল্য কামনা করে দোয়া করেছিলেন। এটা তাঁর জন্য শুধু দোয়া নয় বরং বড় দোয়াই বলতে হয়। এরশাদের সাক্ষাত নিয়ে দলের মজলিশে আলোচনা হয়। তাই কেউ ভুল করে বড় দোয়াকে বদদোয়া মনে করে বিবৃতি পাঠিয়েছে কিনা তা জানা নাই।

হেফাজত আমির কর্তৃক এরশাদকে ইসলামের পক্ষে কাজ করার আহবান জানানোর কথা উল্লেখ করে বাবুনগরী বলেন, এরশাদ সাহেব ইসলাম ও মুসলমানদের পক্ষে সবসময় কথা বলেছেন এবং ক্ষমতায় থাকাকালে ওলামা মাশায়েখদের প্রতি মোহাব্বত দেখিয়েছেন। হেফাজতের কর্মসূচিতে সমর্থন দান করে পানি পানের ব্যবস্থা করেছিলেন। তাই বদদোয়া দেয়ার প্রশ্নই আসে না।

বাবুনগরী আরও বলেন, ১৭ নভেম্বর বেলা সাড়ে ১১টায় হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ হেফাজতের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাত্ করেন। বৈঠকে হেফাজতে ইসলামের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে তিনিও উপস্থিত ছিলেন। কুশল বিনিময় শেষে হেফাজতের আমির এরশাদকে ইমান-আমল ও ইসলামের পথে চলার জন্য হিদায়াতি বিভিন্ন উপদেশ দেন। পাশাপাশি ইসলামবিদ্বেষী নাস্তিক্যবাদীদের বিভিন্ন অপতত্পরতার কথা তুলে ধরে এরশাদকে তাঁর দলীয় অবস্থান থেকে ইসলাম ও মুসলমানদের পক্ষে কাজ করার জন্য আহ্বান জানান। হেফাজতের আমির এরশাদকে উদ্দেশ করে আরও বলেছিলেন, ইসলাম ও মুসলমানদের ওপর আঘাত সহ্য করা হবে না।

ইসলামবিরোধী শক্তির অপচেষ্টা থাকলেও এরশাদ সমসময় তৌহিদি জনতার পক্ষে থাকবে বলে মনে করেন বাবুনগরী।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here