line appsnews

ভাইবার ও ট্যাঙ্গোর পর এবার হোয়াটস অ্যাপসহ আরও তিনটি ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং ও ভিওআইপি অ্যাপ্লিকেশন ‘নিরাপত্তাজনিত কারণে’ বন্ধ করল বাংলাদেশ সরকার। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি গতকাল সোমবার ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়েগুলোকে (আইআইজি) হোয়াটস অ্যাপ, মাইপিপল ও লাইন নামের এই তিনটি অ্যাপ বন্ধের নির্দেশনা পাঠায়। একাধিক আইআইজি প্রতিষ্ঠান নিশ্চিত করেছেন, তাদের আগামী ২১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত এসব অ্যাপ্লিকেশন বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিয়েছে বিটিআরসি।

এর আগে রবিবার সকাল থেকে ভাইবার ও ট্যাঙ্গো ‘নিরাপত্তাজনিত কারণে’ বন্ধ রাখার নির্দেশনা আসে। বিটিআরসির সচিব মো. সরওয়ার আলম ইত্তেফাককে বলেন, ‘স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুরোধের ভিত্তিতে এসব অ্যাপ্লিকেশন সাময়িকভাবে বন্ধের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।’ বিএনপি জোটের অবরোধের মধ্যে এসব অ্যাপ ব্যবহার করে নাশকতাকারীরা যোগাযোগ রাখছে বলে গোয়েন্দাদের তথ্য। এসব বিষয় বিবেচনা করেই বাংলাদেশে ইন্টারনেটনির্ভর এসব অ্যাপ্লিকেশন বন্ধ রাখার অনুরোধ করা হয়েছে বলে র্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জিয়াউল আহসান সাংবাদিকদের জানান। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা বলছেন, তারা ফোন কল পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে অপরাধীদের ওপর নজর রাখতে পারলেও ইন্টারনেটভিত্তিক বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করায় তাদের সনাক্ত করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। তাই পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে এসব অ্যাপ আপাতত বন্ধ করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, কথা বলা, চ্যাট করা, ছবি ও ভিডিও বার্তা পাঠানোর ক্ষেত্রে এসব সফটওয়্যার গ্রাহকরা বেশ পছন্দ করেন। থ্রি-জি, ফোর-জি এবং ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে কাজ করে থাকে এসব সফটওয়্যার। বিটিআরসি’র একজন পদস্থ কর্মকর্তা জানান, সাময়িকভাবে এই ৫টি সেবা বন্ধ করা হয়েছে। এই ৫টি অ্যাপের মাধ্যমে আলাপচারিতায় অবস্থান চিহ্নিত করা যায় না। সে কারণে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীকে সহায়তার জন্য এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here