লড়াই শেষ হয়নি বাংলাদেশের। নিরাপদ অবস্থানে পৌঁছতে হলে পাড়ি দিতে হবে আরও খানিকটা পথ। নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে করা সংগ্রহটা ছাড়িয়ে যেতে পারলে ভাল। না হয় সময়টা নিতে হবে আরও। টেস্টে যে সময়ও একটা বড় নিয়ামক। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে গতকাল সিরিজের প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৩৮০। নিউজিল্যান্ডকে ছুঁতে হলে আরও ৮৯ রান করতে হবে। দিনের খেলা শেষ হওয়ার খানিক আগে নাসির হোসেন আউট হন ৪৬ রান করে। তার আউটে ভরসার জায়গাও কমে গেছে অনেকটা। যদিও কিউইদের লেজটাই দলকে টেনে নিয়ে যায় অনেক দূর। বাংলাদেশের সোহাগ গাজী আর রাজ্জাকের পর ব্যাট করবেন দুই পেস বোলার রবিউল আর রুবেল। তারা কতটা দিতে পারবেন তা অনুমেয়।
২ উইকেটে ১০৩ রান নিয়ে খেলতে নেমে বাংলাদেশ কাল তাদের প্রথম ইনিংসে যোগ করে আরও ২৭৭ রান। মার্শাল আইউব অফের বাইরের বল খেলতে গিয়ে ২৫ রানে আউট হন। ১০৯ বলে তিনি এ রান করেন। তবে তার অপর সঙ্গী মমিনুল আউট হন ১৮১ রানে। দুঃখ তিনি ডাবল সেঞ্চুরিটা পূর্ণ করতে পারেননি। ২৭৪ বলের ইনিংসে ২৭টি চার মারেন তিনি। ৮ রানে দুই উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ দলের চরম বিপর্যয়ে ব্যাট হাতে ক্রিজে যান এ তরুণ ক্রিকেট প্রতিভা। আর বাংলাদেশ দলের ওপর চেপে বসা কিউইদের বাঁধন আলগা করেন নিজ ব্যাটের শাসনে। পাল্টা আক্রমণে নজরকাড়া একের পর এক শটে বল বাউন্ডারি সীমানার বাইরে দিচ্ছিলেন অকুতোভয় ব্যাটিংয়ে। মমিনুল ডাবল সেঞ্চুরির জন্য ক্রমেই সংযমী হলেও রক্ষা পাননি। কিউই পেসার কোরি অ্যান্ডারসনের সোজা বল ব্যাট ফাঁকি দিয়ে তার প্যাডে আঘাত হানলে এলবিডব্লিউ আউটে শেষ হয় মমিনুলের বিরোচিত ইনিংসটি। তিনি ১০০ রান করেন ৯৮ বলে। আর ১৫০ করেন ১৯৮ বলে। আর তার পরের ৩১ রান করেন ৭৬ বলে।
তবে তার আগে আউট হয়ে যান সাকিব আল হাসান ১৯ রান করে। ধীর গতিতে খেললেও টিকে থাকতে পারেনি। ৫০ বলে মাত্র একটি চার মারেন তিনি। দলের রান তখন মাত্র ১৮০। এরপর পঞ্চম উইকেটে মমিন ও মুশফিক ১২১ রান তুলে স্কোর ৩০০ পার করান। তবে এই দুজন একই রানের মাথায় (৩০১) আউট হলে চিন্তায় পড়ে স্বাগতিকরা। মুশফিক ৬৭ রান করেন বেশ দাপটের সঙ্গেই। তিনি ৯১ বলে ফিফটি আর ১১৯ বলে ৬৭ করলেও ৫২ রান করেন ১২ বলে। অর্থাৎ ১০টি চার দু’টি ছক্কা হাঁকান তিনি। ৩৫ টেস্টে এটি তার ১২তম ফিফটি। এদিন তিনি ও সাকিব টেস্টে ২০০০ রানের মাইলফলক অতিক্রম করেন। সপ্তম উইকেটে নাসির হোসেন ও সোহাগ গাজী ৭০ রান যোগ করে দিন পার করে দেন। নাসির প্রায় শেষ মুহূর্তে হাফ সেঞ্চুরি থেকে মাত্র চার রান বাকি থাকতে আউট হন উঁচিয়ে খেলতে গিয়ে। নাসির ৬৫ বলে এ রান করেন ৭টি চার ও একটি ছক্কায়। নাসির অভিষেক হওয়া স্পিনার ইস সোধির প্রথম শিকারে পরিণত হন ম্যাককালামের হাতে ধরা পড়ে। সোহাগও দায়িত্ব নিয়ে খেলছেন। ৬১ বল খেলে ২৮ রানে অপরাজিত আছেন তিনি। তার সঙ্গে আছেন আবদুর রাজ্জাক ১ রান করে।
স্কোর কার্ড
বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড ১ম টেস্ট
জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চিটাগং
নিউজিল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৪৬৯
বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: (৩য় দিন)
(২য় দিন শেষে, মার্শাল আইউব ২১*, মমিনুল ৭৭*)
আইউব ক ওয়াটলিং ব অ্যান্ডারসন ২৫ ১০৯ ১ ০
মমিনুল এলবি ব অ্যান্ডারসন ১৮১ ২৭৪ ২৭ ০
সাকিব ক ওয়াটলিং ব উইলিয়ামসন ১৯ ৫০ ১ ০
মুশফিক ক টেইলর ব ব্রেসওয়েল ৬৭ ১১৯ ১০ ২
নাসির ক উইলিয়ামসন ব সোধি ৪৬ ৬৫ ৭ ১
সোহাগ অপরাজিত ২৮ ৬১ ৩ ০
রাজ্জাক অপরাজিত ১ ৭ ০ ০
অতিরিক্ত: (লব ৮, ও ১, নব ১) ১০
মোট: ৭ উইকেট; ১১৬ ওভার) ৩৮০
উইকেট পতন: ৩-১৩৪ (আইউব), ৪-১৮০ (সাকিব), ৫-৩০১ (মমিনুল), ৬-৩০১ (মুশফিক), ৭-৩৭১ (নাসির)
বোলিং: বোল্ট ১৭-৭-৩২-১, ব্রেসওয়েল ১৮-২-৭১-২, মার্টিন ২১-২-৮৩-০, সোধি ২২-২-৮৯-১, অ্যান্ডারসন ১৪-৭-২৩-২, উইলিয়ামসন ২৪-৩-৭৩-১)
টস: নিউজিল্যান্ড
অবস্থা: ১ম ইনিংসে বাংলাদেশ ৮৯ রানে পিছিয়ে।

সেরাদের কাতারে মমিনুল
স্পোর্টস রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে: বাংলাদেশ টেস্টের ১৩ বছরে মোট ১৭ জন ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি করতে সক্ষম হয়েছেন। টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম সেঞ্চুরিয়ান ছিলেন আমিনুল ইসলাম বুলবুল। আর গতকাল সর্বশেষ ১৭তম ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে সেঞ্চুরি হাঁকালেন মমিনুল হক। বাংলাদেশের হয়ে তামিম ইকবাল ৪টি, হাবিবুল বাশার ৩টি, সাকিব আল হাসান ২টি ও মুশফিকুর রহীম ২টি টেস্ট সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এই পর্যন্ত মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও সাকিব আল হাসানই টেস্ট সেঞ্চুরি করতে সক্ষম হয়েছিলেন। আর গতকাল মমিনুল তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সেঞ্চুরি হাঁকান দেশের মাটিতে। আগের দু’টি সেঞ্চুরির ২টির মধ্যে ২০১০ সালে সাকিব আল হাসান মাহমুদুল্লাহ নিউজিল্যান্ডের মাটিতেই হাঁকিয়েছেন।
টেস্টে বাংলাদেশের ৬টি সেরা ইনিংস
ব্যাটসম্যান প্রতিপক্ষ/সাল ভেন্যু সর্বোচ্চ ১০০
মুশফিকুর রহীম শ্রীলঙ্কা/২০১৩ গল ২০০ ২
মো. আশরাফুল শ্রীলঙ্কা/২০১৩ চট্টগ্রাম ১৯০ ৬
মমিনুল হক নিউজিল্যান্ড/২০১৩ চট্টগ্রাম ১৮১ ১
তামিম ইকবাল ভারত/২০১০ ঢাকা ১৪৪ ৪
আমিনুল ইসলাম ভারত/২০০০ ঢাকা ১৪৫ ১
সাকিব আল হাসান পাকিস্তান/২০১১ ঢাকা ১৪৪ ২
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন সেঞ্চুরি
ব্যাটসম্যান প্রতিপক্ষ/সাল ভেন্যু স্কোর
মমিনুল হক নিউজিল্যান্ড/২০১৩ চট্টগ্রাম ১৮১
সাকিব আল হাসান নিউজিল্যান্ড/২০১০ হ্যামিল্টন ১০০
মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ নিউজিল্যান্ড/২০১০ হ্যামিল্টন ১১৫khela

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here