চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে বাজারে যত উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমনির্ভর স্মার্টফোন বিক্রি হয়েছে তার ৯০ শতাংশ নকিয়ার তৈরি। আগস্ট মাসের তুলনায় সেপ্টেম্বর মাসে নকিয়ার উইন্ডোজ ফোন বিক্রির পরিমাণ তিন শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে। বাজার বিশ্লেষকেরা জানিয়েছেন, নকিয়ার উইন্ডোজ ফোন ক্রমশ জনপ্রিয় হচ্ছে সে ধরনের লক্ষণ দেখা যাচ্ছে।
বাজার বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান অ্যাডডুপ্লেক্স সেপ্টেম্বর মাসে বিক্রি হওয়া স্মার্টফোনের তথ্য প্রকাশ করেছে। এ তথ্য অনুযায়ী, বাজারে উইন্ডোজ ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন মডেলের তুলনায় নকিয়ার উইন্ডোজনির্ভর লুমিয়া সিরিজের স্মার্টফোন সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে। বর্তমানে নকিয়ার পাশাপাশি বাজারে উইন্ডোজনির্ভর প্ল্যাটফর্মে স্মার্টফোন তৈরি করছে এইচটিসি, স্যামসাং ও হুয়াউয়ে। ২০১৩ সালে এইচটিসি, স্যামসাং ও হুয়াউয়ে নিজস্ব ব্র্যান্ডের কয়েকটি উইন্ডোজ ফোন বাজারে আনলেও নকিয়া ৮ টি উইন্ডোজ ফোন বাজারে এনেছে।
সেপ্টেম্বর মাসের হিসাব অনুযায়ী, সারা বিশ্বে জনপ্রিয় উইন্ডোজ ফোনের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ‘লুমিয়া ৫২০’। মোট বিক্রি হওয়া উইন্ডোজ ফোনের ২৩.২ শতাংশ লুমিয়া ৫২০ স্মার্টফোনটি। এরপর রয়েছে লুমিয়া ৯২০ ও লুমিয়া ৭১০।
এখন পর্যন্ত মাইক্রোসফটের তৈরি অপারেটিং সিস্টেমনির্ভর স্মার্টফোনের ৭০.৯ শতাংশ উইন্ডোজ ফোন ৮ অপারেটিং সিস্টেমে চলছে। ২০১১ সালে মাইক্রোসফটের উন্মুক্ত করা উইন্ডোজ ফোস ৭ প্ল্যাটফর্মে চলছে ২৯.১ শতাংশ উইন্ডোজনির্ভর স্মার্টফোন। ফোর্বস অনলাইনের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
প্রসঙ্গত, ফিনল্যান্ডের মুঠোফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নকিয়ার মুঠোফোন বিভাগ কিনে নিতে রাজি হয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট। পাশাপাশি নকিয়ার বিভিন্ন প্রযুক্তির মেধাস্বত্ব ও ম্যাপিং সেবার নিয়ন্ত্রণও নিতে রাজি তারা। এ জন্য মাইক্রোসফটকে গুনতে হবে ৭২০ কোটি ডলার।

প্রতিষ্ঠান দুটি এক যৌথ বিবৃতিতে জানিয়েছে, ২০১৪ সালের প্রথমার্ধে এ চুক্তি হবে। এরপর বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা নকিয়ার প্রায় ৩২ হাজার কর্মী মাইক্রোসফটে যোগ দেবেন। তবে এর আগে চলতি বছরের নভেম্বর মাসে নকিয়ার শেয়ারধারীরা নকিয়াকে মাইক্রোসফটের কাছে বিক্রির বিষয়টি নিয়ে তাদের ভোট দেবেন।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here