প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের আলোচনার দরজা সবসময়ই খোলা। তারা চাইলে আমরা যে কোন সময় আলোচনার জন্য প্রস্তুত। তারা ইতিপূর্বে সংসদে আলোচনার জন্য যে প্রস্তাব এনে আবার তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে, সে বিষয়েও আমরা আলোচনা করতে প্রস্তুত রয়েছি। তার সরকার আসন্ন নির্বাচন ও বিদ্যমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিসহ যে কোন ইস্যু নিয়ে বিরোধী দলের সঙ্গে সংসদে আলোচনার জন্য সবসময়ই প্রস্তুত রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী আজ তার সরকারি বাসভবন গণভবনে ঈদুল আজহা উপলক্ষে দলীয় নেতা-কর্মী এবং সর্বস্তরের জনগণের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে বলেন, আমরা অবশ্যই তাদের যে কোন প্রস্তাব বিবেচনা করব। আমাদের দিক থেকে এ ব্যাপারে কোন সমস্যা নেই।

ঈদুল আজহার পর দেশের শান্তি বিনষ্টকারী যে কোন ধরনের কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে দলীয় কর্মীদের উস্কানি না দেয়ার জন্য বিরোধী দলীয় নেতার প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, দা, কুড়াল, চাকু এবং বোমা নিয়ে তাদের নেতা-কর্মীদের প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জাতির জন্য খুবই দুর্ভাগ্যজনক। জনগণ যখন সংহতি, শান্তি ও সমপ্রীতির সঙ্গে ঈদ উদযাপন করছে, ঠিক সেই সময়ে এ ধরনের উস্কানি জাতির জন্য পীড়াদায়ক।

শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের বিরোধী দলীয় নেতা যদি কোন সমস্যার সৃষ্টি না করেন এবং জনগণকে নৈরাজ্য সৃষ্টির ব্যাপারে কোন উস্কানি না দেন, তাহলে ২৪ অক্টোবরের পরে দেশে কোন গোলযোগ হবে না, শান্তি বজায় থাকবে এবং এ বিষয়টি পুরোপুরি তাদের ওপর নির্ভরশীল। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন দশম জাতীয় সংসদের তফসিল ঘোষণার আগ পর্যন্ত জাতীয় সংসদ বহাল থাকবে।

দেশের জনগণকে আগামী ২৪ অক্টোবরের পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ওই সময়ের পরও সরকার থাকবে এবং আগামী ২৪ অক্টোবর থেকে ২৪ জানুয়ারি ২০১৪-এর মধ্যে যে কোন দিন দেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, এ ব্যাপারে জনগণকে উস্কানি দেয়ার বা বিভিন্ন মতামত ব্যক্ত করে তাদের সন্দিগ্ধ করার কোন সুযোগ নেই। বিষয়টি সংবিধানে পরিষ্কারভাবে উল্লেখ রয়েছে।

শেখ হাসিনা এ ব্যাপারে সংবিধানের ১২৩, ৭২ এবং ৫৭ নম্বর অনুচ্ছেদ পড়ে দেখার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, সংবিধানে এ ব্যাপারে পরিষ্কার নির্দেশনা রয়েছে। খবর বাসস।pm

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here