নারী নির্যাতন মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আরফিন রুমি। মোহাম্মদপুর থানা সূত্রে জানা গেছে, যৌতুকসহ বিভিন্ন অজুহাতে দীর্ঘদিন ধরে প্রথম স্ত্রী অনন্যাকে নির্যাতন করে আসছিলেন রুমি। মাঝে মধ্যে তিনি কোন কারণ ছাড়াই স্ত্রীকে পিটিয়ে বাসা থেকে বের করে দিতেন। এছাড়া প্রথম স্ত্রীর অনুমতি ছাড়াই আরেকটি বিয়ে করেন তিনি। এর প্রতিবাদ করায় শুক্রবার রাতেও অনন্যাকে বেধড়ক পেটান রুমি। এসব অভিযোগে অনন্যা বাদী হয়ে ওই রাতেই নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মোহাম্মদপুর থানায় রুমির বিরুদ্ধে মামলা করেন। আজ সকাল ৭টায় মোহাম্মদপুর কাটাসুরের কাদেরাবাদ হাউজিংয়ের বাসা থেকে রুমিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। উল্লেখ্য, গত বছরের অক্টোবরে নিউ ইয়র্ক প্রবাসী কামরুন নেসার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে নতুন করে আলোচনার জন্ম দেন রুমি। এরপর নিউ ইয়র্ক থেকে ২৪শে অক্টোবর রাতে ঢাকায় আসেন কামরুন নেসা। ওই রাতেই রাজধানীর পুরান ঢাকার গুলবদন দরবার শরিফে (রুমির দাদার বাড়ি) দ্বিতীয় বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন রুমি। বিয়ের অনুষ্ঠানে রুমির প্রথম স্ত্রী অনন্যা, মা, বড় ভাইসহ উভয় পরিবারের ঘনিষ্ঠ আত্মীয়স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন। বিয়ের পর দুই স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে তোলা ছবি ফেসবুকে দিয়ে ব্যাপক সমালোচিত হন এই শিল্পী। রুমির প্রথম স্ত্রী অনন্যার ঘরে আরিয়ান নামের আড়াই বছর বয়সী একটি ছেলে রয়েছে। চলতি বছরের এপ্রিলে দ্বিতীয় স্ত্রী কামরুন নেসার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান রুমি। সেখানে তিনি বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানেও অংশ নেন। প্রবাসী বাঙালিদের আয়োজনে ফ্লোরিডার একটি অনুষ্ঠানে হিন্দি গান গাওয়ার জন্য সমালোচিত হন রুমি। এরপর উপস্থিত বাঙালি দর্শকদের কাছে ক্ষমা চান তিনি। দীর্ঘ সাত মাস যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান শেষে গত ৮ই অক্টোবর কামরুন নেসাকে সঙ্গে নিয়ে দেশে ফেরেন রুমি। rumi

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here