joynews

১০ লাখ আইটি পেশাদার তৈরির মাধ্যমে আগামী ৫ বছরের মধ্যে বছরপ্রতি তথ্যপ্রযুক্তি খাতে রফতানি আয় এক বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৫’ মেলায় মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সে প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিখাতে আগামী ৫ বছরে লক্ষ্যমাত্রা তুলে ধরতে গিয়ে তিনি এ ঘোষণা দেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমানের সঞ্চালনায় মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের মহাসচিব হাওলিন ঝাও, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, মালদ্বীপের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আহমেদ আদীম, নেপালের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রী ড. মিপ্রন্দ্র প্রসাদ রিজা ও ভুটানের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রী ডি এন ডানগাজেল বক্তব্য দেন।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা বলেন, ‘আগামী ৫ বছরের মধ্যে প্রতিবছর এক কোটি ইন্টারনেট ব্যবহারকারী বাড়বে। জিডিপিতে আইটি খাতের অবদান হবে এক শতাংশ।’

বক্তব্যের শুরুতে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ‘‘স্বাধীনতার পর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেনরি কিসিঞ্জার বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশ একটি তলাবিহীন ঝুঁড়ি’। কিন্তু, আজ আমরা অবশ্যই তলাবিহীন ঝুঁড়ি নই।’’

জয় বলেন, ‘সারা দেশে ৫৩ হাজার ডিজিটাল সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে সাধারণ মানুষ সহজেই সরকারি সব সেবা নিতে পারছে। জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন, ভূমি রেকর্ড, পরীক্ষার ফলাফল, সরকারি বিভিন্ন ফরম, মোবাইল ব্যাংকিং, লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ইংরেজি শিক্ষা, স্বাস্থ্য পরামর্শ ডিজিটাল হয়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় ওয়েবসাইট এখন আমাদের, যেখানে ৫০ হাজারের বেশি লোক কাজ করছেন।’

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা বলেন, ‘বর্তমানে জনসংখ্যার ৬৫ শতাংশের বয়স ২৫ বছরের নিচে। এরা তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে প্রচণ্ড আগ্রহী। আইটি ফ্রি-ল্যান্সিংয়ের হার বাড়ছে দ্রুত। ১০ হাজারের বেশি আইটি গ্রাজুয়েট বের হচ্ছে প্রতিবছর।’

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here