biyenews

রেলমন্ত্রীর বহুল আলোচিত বিয়ে আজ। দীর্ঘ ৬৭ বছরের একাকিত্ব জীবনের অবসান ঘটিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন রেলপথ মন্ত্রী ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহবায়ক মো. মুজিবুল হক এমপি। দেশের ইতিহাসে এটিই প্রথম মন্ত্রী হিসেবে কারও কুমার জীবনের ইতি ঘটছে। তাই দেশের সকল শ্রেণীর মানুষের দৃষ্টি এখন কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার মিরাখলা গ্রামের দিকে। কারণ কনে হনুফা আক্তার রিক্তা এ গ্রামেরই মেয়ে।

ইতিমধ্যে মন্ত্রী বরকে বরণ করতে সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে কনেপক্ষ। এলাকায় চলছে উত্সবের আমেজ, আনন্দ-উচ্ছ্বাস। বিয়ের তোড়ন ও প্যান্ডেল নির্মাণ থেকে শুরু করে আলোকসজ্জার কাজ সবই সম্পন্ন হয়েছে। গ্রামটি এখন  মনোমুগ্ধকর বর্ণিল আলোকচ্ছটায় উদ্ভাসিত। বিয়ে উপলক্ষে এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। আমন্ত্রিত মন্ত্রী, এমপি, প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তাসহ ভিআইপি ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের আগমনে আজ মুখর হয়ে উঠবে মিরাখলা গ্রাম।

জানা গেছে, দ্রুতগতিতে সংস্কারের মাধ্যমে কনের বাড়িতে যাওয়ার রাস্তাটি অতিথিদের যাতায়াতের উপযোগী করেছে এলজিইডি। শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক কর্মী, পুলিশ, আনসারসহ আইন-শৃংখলা বাহিনীর প্রায় দেড় শতাধিক সদস্য গ্রামের সার্বিক নিরাপত্তায় নিয়োজিত রয়েছেন। কনের বাড়ির পাশে তালতলা বাজারে গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আলোকসজ্জাসহ সার্বক্ষণিক বিদ্যুত্ নিশ্চিত রাখতে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুত্ সমিতি-১ এর কর্মকর্তারা দায়িত্ব পালন করছেন। মিরাখলা গ্রামের কাজী মাওলানা ছিদ্দিকুর রহমান এ  বিয়ে পড়াবেন। এখন শুধু শুভ পরিণয়ের অপেক্ষা।

রিক্তার ভাই আলাউদ্দিন মুন্সী ও নাসির উদ্দিন মুন্সী জানান, তিনটি প্যান্ডেলে অতিথি আপ্যায়ন করা হবে। তবে আপ্যায়ন ও খাবারে কোন বৈষম্য হবে না। কুমিল্লা ক্লাবের বাবুর্চি মিল্টন রোজারিও বৃহস্পতিবার থেকে রান্নার কাজের সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন।

কনের খালাতো ভাই কুমিল্লা উত্তর জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি লুত্ফর রেজা খোকন জানান, আল্লাহর রহমতে শুক্রবার (আজ) দুপুরে ধর্মীয় রীতিনীতিতে উভয়ের শুভ পরিণয় সুসম্পন্ন হবে। মন্ত্রী-এমপি ও সচিবসহ ২ শতাধিক উচ্চপদস্থ রাস্ট্রীয় অতিথিসহ সবমিলিয়ে ৬-৭শ’ বরযাত্রী চান্দিনায় আসবেন। বরযাত্রীসহ সব মিলিয়ে ১৫শ’ অতিথির আপ্যায়নের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বর রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক বলেন, ‘আমি নেত্রীর (শেখ হাসিনা) কাছ থেকে বুধবার (গায়ে হলুদের দিন) দোয়া নিয়ে এসেছি। তিনি আমাকে দোয়া করেছেন যেন বিয়ের সব অনুষ্ঠান সুন্দরভাবে হয়। দলীয় নেতারা সবাই খুশি। দেশবাসীও খুশি। আমি সবার কাছে দোয়া চাই।’

প্রসঙ্গত, বিয়ের পর নবদম্পতি বেইলি রোডের মন্ত্রীপাড়ার বাসায় উঠবেন বলে জানা গেছে। এছাড়া আগামী ১৪ নভেম্বর ঢাকায় জাতীয় সংসদ ভবন চত্বরের ২ নম্বর এলডি হলে প্রীতিভোজ এবং ৬ ডিসেম্বর রেলমন্ত্রীর গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের বসুয়ারা গ্রামে বৌ-ভাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here